ক্ষমতায় এলেই ৫ বছরে ৭৫ লাখ চাকরির ‘প্রতিশ্রুতি কার্ড’ বিজেপির

বিভাগ-বহির্ভূত

Last Updated on 9 months by admin

মমতার ‘দুয়ারে সরকার’-এর পাল্টা ‘‌আর নয় অন্যায়, আর নয় বেকারত্ব’‌— কর্মসূচির সূচনা করল বঙ্গ বিজেপি

বিধানসভা নির্বাচনের দামামা বাজার আগে বেকারদের জন্য ঢালাও প্রতিশ্রুতি নিয়ে এল বঙ্গ বিজেপি। গত রবিবার কর্মসংস্থানের প্রতিশ্রুতি কার্ড প্রকাশ করলেন দলের দুই শীর্ষ নেতা মুকুল রায় ও সৌমিত্র খান৷

একুশে বিধানসভা ভোটের কথা মাথায় রেখে যখন ‘দুয়ারে সরকার’, ‘বঙ্গধ্বনি যাত্রা’সহ একের পর এক কর্মসূচি নিচ্ছে তৃণমূল, তখন বিজেপিও নানা প্রতিশ্রুতি নিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়েছে। কলকাতায় দলের সদর দফতর থেকে ‘চাকরির প্রতিশ্রুতি কার্ড’ বিলি শুরু করল তারা। ৭৮ হাজার বুথ এলাকায় প্রতিশ্রুতি কার্ড নিয়ে বিজেপি কর্মীরা যাবেন বলে জানান বিজেপি-র যুবমোর্চার সভাপতি সৌমিত্র খান। তিনি বলেন – প্রতিশ্রুতি কার্ড দিয়ে ৭৫ লক্ষ বেকার যুবকদের নাম নথিভুক্ত করা হবে।

বিজেপির সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি মুকুল রায় ও সাংসদ সৌমিত্র খাঁ তৃণমূল জমানায় বাংলায় বেকারত্ব বৃদ্ধি নিয়ে ক্ষোভ উগরে দেন। টেট পরীক্ষার মাধ্যমে শিক্ষক নিয়োগে দুর্নীতির কথা উল্লেখ করেন তাঁরা। বাংলার বেকার সমস্যা নিয়ে এদিন মমতা সরকারের দায়ের কথা তোলেন মমতার একদা সেকেন্ড-ইন-কমান্ড মুকুল রায়। বলেন, “এখন বাংলায় শিল্প সম্মেলন হয়। কিন্তু বিনিয়োগ হয় না। সিঙ্গুরেও কিছু হয়নি। টাটাকে তাড়ানো ছিল সব থেকে বড় ভুল।”রাজ্যে ৯টি বাণিজ্য মেলা করেছেন। এই মেলা করতে কত খরচ হয়েছে? বিনিময়ে কত টাকার বিনিময় এসেছে? তা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে শ্বেতপত্র প্রকাশের দাবি জানালেন বিজেপি নেতা মুকুল রায়।

কিন্তু প্রশ্ন উঠছে, এভাবে কী কোনও রাজনৈতিক দল চাকরি দিতে পারে? কারণ সরকারি চাকরির ক্ষেত্রে আবেদনকারীদের নাম নথিভুক্ত করার একটা জায়গা আছে, বিভিন্ন কমিশন রয়েছে। তার মাধ্যমেই নিয়োগ হয়। কিন্তু একটা রাজনৈতিক দল যদি এভাবে জন বেছে বেছে প্রতিশ্রুতি দেয়, তা কি পালন করা সম্ভব?

উল্টোদিকে বিজেপির কর্মসংস্থানের প্রতিশ্রুতিকে ‘প্রতারণা’ হিসেবে চিহ্নিত করে প্রচারে নেমে পড়েছে তৃণমূল। রাজ্যের প্রবীণ মন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায় তৃণমূল আমলে তৈরি কর্মসংস্থানের হিসেব সোমবার প্রকাশ করে বলেছেন – বিজেপি-র কাজ দেওয়ার প্রতিইশ্রুতিকে কটাক্ষ করেছেন। তিনি জানান যে বিজেপি সরকারের আমলে দেশে দেশে সব চাইতে বেকার বেড়েছে; তাই তাদের এই চাকরি কার্ড একটা ভাওতা ছাড়া কিছু নয়।

ক্রমশ বাড়ছে বেকারত্বের সমস্যা, একথা অবশেষে মেনে নিল কেন্দ্রীয় সরকার।  সেন্টার ফর মনিটরিং ইন্ডিয়ান ইকনমি সম্প্রতি এক তথ্য প্রকাশ করে জানিয়েছে যে লকডাউনের ফলে গত এপ্তিল মাস থেকে ১.৮ কোটি বেতনভূক কর্মচারী কাজ হারিয়েছেন। শুধু জুলাই মাসে এই সংখ্যাটা ছিল ৫০ লক্ষেরও বেশি। কেউ কেউ আশংকা প্রকাশ করেছেন যে এ বছের শেষে মোট ১২ কোটি মানুষ তাদের কাজ হারাবেন। তাই বিজেপি-র এই চাকরির কার্ড আসলে প্রতিশ্রুতি না প্রতারণা তা আগামী দিন বলবে বলে অনেকে মত প্রকাশ করছেন।

 

 

 

 

Please follow and like us:
error16
fb-share-icon0
Tweet 20
fb-share-icon20
No Thoughts on ক্ষমতায় এলেই ৫ বছরে ৭৫ লাখ চাকরির ‘প্রতিশ্রুতি কার্ড’ বিজেপির

Leave A Comment