২৬ শে জানুয়ারি লালকেল্লায় পতাকা কাণ্ডের অভিযোগে অভিনেতা দীপ সিধু গ্রেপ্তার

আজকের খবর

Last Updated on 8 months by admin

বিশেষ সংবাদদাতা, ৯ই ফেব্রুয়ারি: আজ সকালে দিল্লী পুলিশ চলমান কৃষক আন্দোলনের  সাথে যুক্ত  ও অভিনেতা দীপ সিধুকে গ্রেপ্তার করেছে বলে গণমাধ্যমগুলোতে দাবি জানিয়েছে। দীপ সিধুর বিরুদ্ধে অভিযোগ তিনি প্রজাতন্ত্র দিবসের দিন রাজধানীর বুকে হিংসাত্মক কার্যকলাপের সাথে যুক্ত ছিলেন। দিল্লী পুলিশের বিশেষ সেলের পক্ষ থেকে সঞ্জীব যাদব সেই প্রেক্ষিতেই আজ সকালে টুইট করে জানান, “দিল্লীতে হিংসাত্মক কার্যকলাপের মূল অভিযুক্ত দীপ সিধুকে আজ গ্রেপ্তার করা হয়েছে।” যদিও কোথা থেকে দীপ সিধুকে দিল্লী পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে সেই বিষয়ে কোনো তথ্য তারা প্রশাসনের  তরফে এখনও জনগণের সামনে আসতে দেয়নি।

২৬ শে জানুয়ারির পতাকা কাণ্ডের পরই অবশ্য দীপ সিধু সহ আরও তিনজন মূল অভিযুক্ত সম্পর্কে তথ্য সংক্রান্ত সাহায্য চেয়ে দিল্লী পুলিশ ১ লক্ষ টাকার পুরস্কার ঘোষণা করেছিল। তবে শুধু দীপ সিধুই নয়, জাজবীর সিং, বুটা সিং, সুখদেব সিং এবং ইকবাল সিং নামক আন্দোলনের চার কর্মীর বিরূদ্ধেও একইভাবে পুলিশ প্রশাসন সরকারি সম্পত্তি নষ্টের অভিযোগের ভিত্তিতে ৫০০০০ টাকা পুরস্কার ঘোষণা করে।

কিন্তু শুধু এই ঘোষণাটুকু করেই যে কেন্দ্রীয় সরকার থেমে থাকেনি তা আজ গ্রেপ্তারির ঘটনার মধ্যে দিয়েই সকলের সামনে আবার স্পষ্ট হয়ে গেল।

বিশেষ সূত্র থেকে জানা যাচ্ছে দীপ সিধুদের  কার্যকলাপের সঠিক তদন্তের জন্য প্রশাসন তিনটি স্তরে আলাদা আলাদা ভাবে দায়িত্ব ভাগ করে নিয়েছিল – স্থানীয় পুলিশ, বিশেষ সেল এবং অপরাধ দমন শাখা। কারণ, ২৬ শে জানুয়ারি লালকেল্লার ঘটনাটিতে মূল অভিযুক্ত হিসেবে পাঞ্জাবী অভিনেতা দীপ সিধুর সাথে সাথে লাক্কা সাদানের নামও এফ.আই.আরে নথিভুক্ত করা হয়েছিল।

কিন্তু ২৬ শে জানুয়ারি রাজধানীর বুকে ঠিক কি হয়েছিল যার জন্য প্রশাসনিক স্তরে এত গুরুত্ব দেওয়া  হচ্ছে?

প্রজাতন্ত্র দিবসের আগে সাংবাদিক বৈঠকের মাধ্যমে আন্দোলনকারী কৃষক সংগঠনগুলির তরফ থেকে জানানো হয়েছিল শান্তিপূর্ণ ট্রাক্টর মিছিলের মধ্যে দিয়ে ২৬ শে জানুয়ারি কৃষকরা কৃষি-বিলের বিরূদ্ধে তাঁদের প্রতিবাদ জানাবেন। সেই অনুযায়ী, তার আগের দিন থেকেই উত্তর ভারতের গ্রামগুলো থেকে লাখ লাখ কৃষিজীবী মানুষ ট্রাক্টর-সহ রাজধানীর বুকে জমায়েত করতে থাকেন। কিন্তু ২৬ শে জানুয়ারির সকালে  কিছু  ব্যক্তি  ও  সংস্থা  “সংযুক্ত কিষান মোর্চা”র  নির্দেশনামা লঙ্ঘন করে  অন্য পথে দিল্লীতে প্রবেশ  করে। এদের মধ্যে কেউ কেউ বিজেপি-র  সাথে রাজনৈতিকভাবে  ঘনিষ্ঠ বলেও  জানা যায়।  ২৫ তারিখ রাত্রেই ‘সংযুক্ত কিষান মোর্চা’র  তরফে  ওই সব ব্যক্তি ও সংস্থাদের থেকে  ‘দিল্লী কিষান প্যারেড’ -এর রুট ও সময় -এর বিষয়ে  তাদের ভিন্নতা দিল্লী পুলিশকে  জানিয়ে দেওয়া  সত্ত্বেও  কৃষক আন্দোলনকে বদনাম করার জন্য  পুলিশ এই সমস্ত ব্যক্তি ও  সংস্থাকে বিনা বাধায়  দিল্লী-তে প্রবেশ করতে দেয়, যাতে দিল্লীতে এক অরাজক পরিস্থিতি তৈরী হয়।  ‘মোর্চার’ অভিযোগ অনুযায়ী দিল্লী  পুলিশ পূর্ব -নির্ধারিত  রুটে ‘মোর্চার’  প্যারেডেও বাধা সৃষ্টি করে এবং ব্যাপক অরাজকতা সৃষ্টি করে।  পরিকল্পিত-ভাবে কেন্দ্র সরকার ও দিল্লী পুলিশ কিষান প্যারেডে বাধা ও অরাজকতা সৃষ্টির পর,  প্রশাসনের তরফ থেকে কৃষকদের বিরূদ্ধে রাজধানীতে সরকারি সম্পত্তি নষ্ট করার অভিযোগ দায়ের করা হয়।

কিন্তু শুধু এটুকুতেই প্রজাতন্ত্র দিবসের বিতর্ক আটকে থাকেনি। এসবের মাঝেই গণমাধ্যমগুলোতে আরও একটি ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে যেখানে দেখা যায় কোনো এক আন্দোলনকারী লালকেল্লায় ভারতের জাতীয় পতাকার ওপরে নিশান সাহিবের পতাকা বেঁধে দিচ্ছেন।কিন্তু কে ঠিক এই পতাকা বেঁধেছিলেন সে নিয়ে কোনো সঠিক তথ্য পুলিশের কাছে ছিল না। কারণ ভিডিওটিতে কারও মুখই স্পষ্ট দেখা যাচ্ছিল না। যদিও এই ভিডিওটি সামনে আসার পর থেকেই জনগণের মধ্যে কৃষক আন্দোলন নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা যেতে শুরু করে। অনেকেই ঘটনার তীব্র নিন্দা করেন। এবং ওই সময় ঘটনাস্থলে উপস্থিত সংবাদমাধ্যমগুলির তরফ থেকেও ঘটনাটির তীব্র প্রতিবাদ জানানো হয়।

তার পর পরই আন্দোলনে অংশগ্রহণকারী অভিযুক্ত দীপ সিধুর ফেসবুক প্রোফাইল থেকে একটি ভিডিও প্রকাশ করা হয় যেখানে এই পাঞ্জাবী অভিনেতা পতাকা কাণ্ডের দায়ভার স্বীকার করে জানান যে, তিনি লালকেল্লার বাইরে অন্য একটি পোলে নিশান সাহিবের পতাকা বেঁধেছিলেন।

এর পাশাপাশি , কেন্দ্রীয় সরকারের সাথে দীপ সিধুর ঘনিষ্ঠতা  সংক্রান্ত বিভিন্ন তথ্য ও ছবিও তারপর গণমাধ্যমগুলিতে ছড়িয়ে পড়ে। ফলে আন্দোলনকারীদের একাংশের মধ্যে দীপ সিধু’র এই ঘটনাটি আন্দোলন দমানোর জন্য কেন্দ্রীয় সরকারের মাষ্টার স্ট্রোক কিনা সেবিষয়েও প্রশ্ন উঠতে থাকে। পরিস্থিতি এতটাই জটিল আকার ধারণ করে যে, আন্দোলনের নেতৃত্বকে প্রকাশ্য সাংবাদিক বৈঠকে ঘটনার দায় অস্বীকার  করে বিবৃতি দেন এবং কেন্দ্র সরকারের ষড়যন্ত্রের ইঙ্গিত করেন।

এমন এক পরিস্থিতিতে দীপ সিধুকে গ্রেপ্তার কি নিছকই গ্রেপ্তারি নাকি কেন্দ্রীয় সরকার এর মধ্যে দিয়ে আন্দোলনকারীদের কোনো বার্তা পাঠাতে চাইল, সেটাই এখন দেখার ।

Please follow and like us:
error16
fb-share-icon0
Tweet 20
fb-share-icon20
Tagged
No Thoughts on ২৬ শে জানুয়ারি লালকেল্লায় পতাকা কাণ্ডের অভিযোগে অভিনেতা দীপ সিধু গ্রেপ্তার

Leave A Comment