নবান্ন অভিযানে বাম-কংগ্রেস ছাত্রযুবদের ওপর পুলিসি আক্রমণ – প্রতিবাদে আজ বন্‌ধ রাজ্যজুড়ে

আজকের খবর বিশেষ খবর রাজনীতি

Last Updated on 7 months by admin

নিজস্ব সংবাদদাতা, ১২ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ :

গতকাল SFI-DYFI সহ বামফ্রন্টের শরিক দলগুলোর ছাত্রযুব সংগঠনের তরফ থেকে নবান্ন অভিযানের ডাক দেওয়া হয়েছিল। এই অভিযানে সামিল হয় বামফ্রন্টের জোট শরিক কংগ্রেসের ছাত্রযুবরাও। মূলত কর্মসংস্থানের দাবীতে এই কর্মসূচির ওপর পুলিস জায়গায় জায়গায় জলকামান, টিয়ার গ্যাসের শেল ও লাঠি চার্জ করে।

বৃহস্পতিবার বাম ছাত্র-যুবদের ‘নবান্ন অভিযান’ মিছিলে পুলিশের ভূমিকা দেখে আশ্চর্য হয়েছেন অনেকেই। পুলিশের লাঠিচার্জের ফলে এ দিন বহু বাম সমর্থক আহত হয়েছেন। মিছিলের মধ্যে থাকা বহু ছাত্র-যুবের মাথায়, চোখে লাঠির আঘাত লেগেছে। উদ্যোক্তা সংগঠনগুলির তরফ থেকে জানানো হয়েছে এই ঘটনায় তাদের শতাধিক কর্মী আহত হয়েছেন।

পুলিসি আক্রমণের বিবরণ দিতে গিয়ে SFI এর এক কর্মী পৃথা তা বললেন, “আমরা কলেজ স্ট্রিট থেকে শুরু করে মিছিল করে ধর্মতলার দিকে এগোচ্ছিলাম। লেনিন সরণীতে পুলিস ব্যারিকেড করে আমাদের আটকায়। জলকামান ব্যবহার করে। আচমকা চারপাশ থেকে ঘিরে ধরে লাঠিচার্জও শুরু করে। আমার ওপর লাঠির ঘা লাগার পর আমি আত্মরক্ষার চেষ্টা করলে আমার গলা টিপে ধরেছিলেন এক পুলিসকর্মী। কিছুক্ষণ এরকম চলার পর আমি জ্ঞান হারাই। জ্ঞান ফেরার পর কিছু সহকর্মী বন্ধু আমায় উদ্ধার করে হাসপাতাল নিয়ে যায়। অক্সিজেন দেওয়ার পর আমি সুস্থ বোধ করি।”

আন্দোলনকারীরা গতকাল তাদের প্রেস বিবৃতিতেও জানান যে পুলিস  নির্দিষ্ট পদ্ধতি না মেনেই আক্রমণ চালিয়েছে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানালেন, নিউ মার্কেটসহ ধর্মতলার আশেপাশে গলিগুলো এমন ভাবে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল যে আহত পুলিশকর্মীদের জন্যও অ্যাম্বুল্যান্স ঢুকতে পারেনি।

আজ এই ঘটনার প্রতিবাদে ১২ ঘন্টার বন্‌ধ ডেকেছে তারা। গণ-আন্দোলনের ওপর পুলিসি আক্রমণ, দমনপীড়ন নতুন কিছু নয়। এই সরকারের আমলে গণ-আন্দোলনের কর্মীদের ওপর UAPA-র মতো আইনে মামলা হওয়ার নজির রয়েছে। পূর্ববর্তী বামফ্রন্ট সরকারের শাসনকালেও বলপ্রয়োগ করে বিরোধীদের কন্ঠরোধ করতে দেখেছি আমরা। গতকালের এই ঘটনা সেই তালিকায় নতুন সংযোজন।

গতকাল বাম ছাত্র-যুবদের ওপর পুলিশি আক্রমণের ঘটনায় গণতান্ত্রিক অধিকার রক্ষা সমিতি এক প্রেস বিবৃতিতে জানিয়েছেন, “ নবান্ন অভিযান ঠেকাতে কলকাতা পুলিশ যেভাবে কাঁদানে গ্যাস, জল-কামান ও লাঠির অপব্যবহার করলো তা এক পূর্ব পরিকল্পিত নৃশংসতার স্বাক্ষর হয়ে রইলো। পূর্বেও অনুরূপ নৃশংসতার মাদ্যমে নবান্ন অভিযান রক্তাক্ত করেছে পুলিশ।“ এই ঘটনার নিন্দা করেছে বহু ছাত্রছাত্রী ও যুব সংগঠন।

আজকের বন্‌ধে কিছু বিক্ষিপ্ত ঘটনা ঘটেছে। কিছু জায়গায় বন্‌ধ সমর্থকরা রাস্তা ও রেল অবরোধ করেছেন। পুলিশ আজও নানা জায়গায় বন্‌ধ সমর্থকদের আক্রমণ করে বলে অভিযোগ। রাজ্য সরকার আগের মতোই নোটিশ জারি করেছেন – সরকারি কর্মীদের অফিসে আসা বাধ্যতামূলক।

কালকের কর্মসূচি প্রসঙ্গে এক আন্দোলনকারী বললেন, “ধর্ম, জাতপাত, মন্দির মসজিদ নয়, লড়াই হোক মানুষের রুটি রুজির প্রশ্নে। এভাবেই সাম্প্রদায়িক রাজনীতির কারবারীদের অপ্রাসঙ্গিক করে তুলতে হবে।” বাম-কংগ্রেস জোট সামনের বিধানসভা নির্বাচনে এই লড়াকু মনোভাব দেখালে ভোট সমীকরণ অন্যরকম হয়ে উঠতে পারে, মত রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের।

Please follow and like us:
error16
fb-share-icon0
Tweet 20
fb-share-icon20
No Thoughts on নবান্ন অভিযানে বাম-কংগ্রেস ছাত্রযুবদের ওপর পুলিসি আক্রমণ – প্রতিবাদে আজ বন্‌ধ রাজ্যজুড়ে

Leave A Comment