হরিয়ানার গ্রামে বিজেপি নেতাদের বয়কটের ডাক গ্রামবাসীদের

আজকের খবর কৃষক আন্দোলন বিশেষ খবর

Last Updated on 7 months by admin

নিজস্ব সংবাদদাতা, ১৭ ফেব্রুয়ারি : 

বিজেপি এবং জেজেপি নেতারা যদি গ্রামে প্রবেশ করেন তবে তাঁদের মালার বদলে “চিত্তর” (জুতো) দিয়ে স্বাগত জানাবেন বলে জানাচ্ছেন হরিয়ানার বহু গ্রামের মানুষজন। হরিয়ানার গ্রামবাসীরা নয়া তিনটি কৃষি আইনকে সম্পূর্ণ প্রত্যাহারের দাবীর পক্ষে দাঁড়াচ্ছেন। গ্রামে গ্রামে পঞ্চায়েত বসিয়ে তাঁরা এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে জানা গেছে।

বিজেপি ও তাদের সঙ্গী জেজেপি-কে তাঁরা “কৃষক বিরোধী” বলে মনে করেন।হরিয়ানার কৃষি মন্ত্রী জয়প্রকাশ দালালের গ্রাম ভিওয়ানির গুসকানি। কিছুদিন আগে জয়প্রকাশ বলেন, “যে কৃষকরা আন্দোলন করে মারা যাচ্ছে, তারা তো ঘরে বসেও মারা যেতে পারতো।” নিন্দার ঝড় ওঠায় চাপে পড়ে তিনিই আবার কয়েকঘন্টা বাদে ক্ষমা চাইতে বাধ্য হন। কৃষিমন্ত্রীর গ্রামের মানুষ কী বলছেন দেখতে আমরা পৌঁছে গেছিলাম সেখানে।

গ্রামের এক মহিলা বীরমতির সাথে অনেকক্ষণ কথাবার্তা হয়। তিনি জানান, “আমরা বিজেপি ও জেজেপি এই দুই দলকেই আমাদের গ্রাম থেকে সামাজিক বহিষ্কারের ডাক দিয়েছি। অর্থাৎ, এই দলের কোনও নেতাকে আমরা গ্রামে ঢুকতে দিচ্ছি না।” কেন এরকম সিদ্ধান্ত নিলেন তারা, তা জিজ্ঞাসা করতেই তিনি বললেন, “আমরাই ভোট দিয়ে ওদেরকে ক্ষমতায় এনেছিলাম। কিন্তু ক্ষমতায় এসে ওরা বিদ্যুৎ, রেল সহ সব বেসরকারিকরণ করে দিচ্ছে। করোনার নামে মানুষকে আরো বিপর্যস্ত করে দিয়েছে।” এই গ্রামের বিধায়কও বিজেপি পার্টির। প্রায় ৮০০ পরিবারের এই গ্রাম থেকে গত ২৬শে জানুয়ারি কৃষক প্রজাতন্ত্র প্যারেডে ২৫টি ট্রাক্টর গেছিল। বীরমতি জানালেন, “আগামীকাল রেল রোকোতেও সামিল হব আমরা। ২০ বিঘা জমিতে ৮ জন মানুষের পরিবার গম, ধান, জোয়ার চাষ করে চলে যাচ্ছিল। সরকারী মান্ডি ব্যবস্থা এবং গম, ধানে ন্যুনতম সহায়ক মূল্য ছিল বলেই চলে যাচ্ছিল। নতুন আইনে আমাদের ভবিষ্যৎ অন্ধকার।” বীরমতির সুরেই কথা বলছেন হরিয়ানার অন্যান্য গ্রামের কৃষিজীবী মানুষ। নয়া কৃষি আইনের বিরুদ্ধে গত ২৬শে নভেম্বর থেকে দিল্লির বর্ডারে যে আন্দোলন চলছে তার জোয়ারে এভাবেই হরিয়ানার একদা বিজেপি প্রভাবিত গ্রামগুলো বিজেপির বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে আজ।

Please follow and like us:
error16
fb-share-icon0
Tweet 20
fb-share-icon20
Tagged
No Thoughts on হরিয়ানার গ্রামে বিজেপি নেতাদের বয়কটের ডাক গ্রামবাসীদের

Leave A Comment