যুক্তিবাদী কন্নড় লেখক কে.এস. ভগবানকে আদালতের সামনে আক্রমণ করলো উগ্র হিন্দুত্ববাদী

আজকের খবর বিশেষ খবর

Last Updated on 8 months by admin

বিশেষ সংবাদদাতা, ৫ ফেব্রুয়ারি :

যুক্তিবাদী কন্নড় লেখক কে.এস.ভগবানকে গতকাল (৪ ফেব্রুয়ারি) বেঙ্গালুরু আদালতের সামনে মীরা রাঘভেন্দ্র নামে এক আইনজীবী আক্রমণ করে গায়ে কালি  ছিটিয়ে দেয়।

টুইটারে এই হামলার কথা স্বীকার করে নেন মীরা এবং এর একটি ভিডিও তিনি শেয়ার করেন। সেই ভিডিও সামাজিক মাধ্যমে প্রচার করছে মীরার মতো আরো অনেক হিন্দুত্ববাদী নেতা ও কর্মীরা।  ভিডিওতে মীরা রাঘবেন্দ্রকে এমন চিৎকার করতে শোনা যায়।  ধর্ম সম্পর্কে  কে.এস. ভগবানের মতামতের জন্য এই আক্রমণ এবং ভগবানকে “লজ্জা” দিতে এই আক্রমণ বলে চিৎকার করতে থাকেন আইনজীবি মীরা।

 

কে.এস. ভগবান একজন কন্নড় লেখক, অনুবাদক, সমালোচক এবং ইংরেজির প্রাক্তন অধ্যাপক। তিনি হিন্দুদের গভীর বর্ণভেদ প্রথা ও অস্পৃশ্যতা নিয়ে তাঁর বহু লেখায় লিখেছেন। তাঁর লেখায় ধর্মে নারীর প্রতি বৈষম্যের প্রচার রয়েছে। তিনি কর্ণাটক রাজ্যোৎসব এবং কর্ণাটক সাহিত্য একাডেমি পুরষ্কার পেয়েছেন এবং চল্লিশটিরও বেশি বই রচনা করেছেন।

 

The Wire সংবাদমাধ্যম জানাচ্ছে, পুলিশ যখন কন্নড় সাংবাদিক গৌরী লঙ্কেশের হত্যার তদন্ত করছে, তখন উগ্রপন্থী  হিন্দুত্ববাদী গোষ্ঠী  কয়েকজন নাস্তিক ও যুক্তিবাদীদের নামের তালিকা করে একটি “হিট-লিস্ট” বানিয়েছে। কে.এস. ভগবানের নামও সেই তালিকায় রয়েছে বলে জানা যায়। NDTV জানিয়েছে, তাঁকে হুমকির দেওয়ার পর থেকে গত কয়েক বছর ধরে রাজ্য পুলিশ সুরক্ষা দিয়েছে।

 

ইতিপূর্বে ভগবানের বিরুদ্ধে মীরা রাঘবেন্দ্র আদালতে একটি অভিযোগ দায়ের করেছিলেন। মীরা বলেছেন যে লেখক কে.এস. ভগবান  হিন্দু ধর্ম ও হিন্দু দেবতা রামের অবমাননা করেছেন। তাই লেখক যখন আদালতে এসে তাঁর গাড়ি থেকে নামেন, তিনি তাঁকে আক্রমণ করেন এবং কালি ছিটিয়ে দেন।

 

মীরা রাঘবেন্দ্র জানিয়েছেন যে এই পদক্ষেপের জন্য তাঁর কোনও অনুশোচনা নেই। তিনি বলেছেন যে তিনি “লেখককে একটি উচিৎ শিক্ষা দিতে চেয়েছেন”। তিনি বলেছেন, “একজন আইনজীবী হিসাবে আমি বিচার বিভাগকে সম্মান করি। আইন ছাড়াও আমি একজন হিন্দু। একজন হিন্দু মহিলা হিসাবে আমি তাকে একটি শিক্ষা দিতে চেয়েছি।“ মীরা আরও জানান, “এটি হিন্দু ও হিন্দু ধর্মের অবমাননার বিরুদ্ধেএকটি বার্তা।

 

ভারতীয় জনতা পার্টি  নেতৃত্বে সরকার চলছে কর্ণাটকে। বিজেপি অতীতেও যুক্তিবাদী চিন্তাবিদ লেখক কে.এস. ভগবানের বিরুদ্ধে নানা প্রচার করেছে। দুই সপ্তাহ আগে কর্ণাটকের শিক্ষামন্ত্রী এস সুরেশ কুমার বলেছিলেন যে সরকারী গ্রন্থাগারগুলি কে.এস. ভগবানের লেখা ‘রাম মন্দির একে বেদা’ (কেন রাম মন্দিরের প্রয়োজন নেই) বইটি কিনবে না কারণ এটি “জনসাধারণের অনুভূতিতে আঘাত হানতে পারে”। ধর্ম ও ধর্মীয় বিশ্বাসের অবমাননার (আইপিসির ধারা ২৯৫ এ) অভিযোগে উগ্র হিন্দুত্ববাদী গোষ্ঠী লেখকের বিরুদ্ধে FIRও দায়ের করেছিল।

Please follow and like us:
error16
fb-share-icon0
Tweet 20
fb-share-icon20
Tagged
No Thoughts on যুক্তিবাদী কন্নড় লেখক কে.এস. ভগবানকে আদালতের সামনে আক্রমণ করলো উগ্র হিন্দুত্ববাদী

Leave A Comment