কৌতুক শিল্পীকে গ্রেপ্তার করল মধ্যপ্রদেশের পুলিশ : অভিযোগ – শিল্পীর উপর হামলা চালিয়েছে উগ্র হিন্দুত্ববাদীরা

আজকের খবর বিশেষ খবর

Last Updated on 9 months by admin

[কাঞ্চীর রাজা কর্ণাট জয় করতে গেলেন। তিনি হলেন জয়ী। ………. এক জায়গায় দেখলেন, পথের ধারে আমবাগানে ছেলেরা খেলা করছে। ………….. ছেলেরা দুই সারি পুতুল সাজিয়ে যুদ্ধযুদ্ধ খেলছে।রাজা জিজ্ঞাসা করলেন, ‘কার সঙ্গে কার যুদ্ধ।তারা বললে, ‘কর্ণাটের সঙ্গে কাঞ্চীর।রাজা জিজ্ঞাসা করলেন, ‘কার জিত, কার হার।ছেলেরা বুক ফুলিয়ে বললে, ‘কর্ণাটের জিত, কাঞ্চীর হার।মন্ত্রীর মুখ গম্ভীর হল, রাজার চক্ষু রক্তবর্ণ, বিদূষক হা হা রে হেসে উঠল।…… রাজা যখন তাঁর সৈন্য নিয়ে ফিরে এলেন, তখনো ছেলেরা খেলছে।রাজা হুকুম করলেন, ‘একএকটা ছেলেকে গাছের সঙ্গে বাঁধো, আর লাগাও বেত।’ ….. সন্ধেবেলায় সেনাপতি রাজার সম্মুখে এসে দাঁড়াল। প্রণাম করে বললে, ‘মহারাজ, শৃগাল কুকুর ছাড়া গ্রামের কারো মুখে শব্দ শুনতে পাবে না।মন্ত্রী বললে, ‘মহারাজের মান রক্ষা হল।পুরোহিত বললে, ‘বিশ্বেশ্বরী মহারাজের সহায়।বিদূষক বললে, ‘মহারাজ, এবার আমাকে বিদায় দিন।রাজা বললেন, ‘কেন।বিদূষক বললে, ‘আমি মারতেও পারি নে, কাটতেও পারি নে, বিধাতার প্রসাদে আমি কেবল হাসতে পারি। মহারাজের সভায় থাকলে আমি হাসতে ভুলে যাব।’]

                               – বিদূষক – রবীন্দ্র নাথ ঠাকুর

বিশেষ সংবাদদাতা: এদেশে এখন বিদূষকদের স্থান জেলে। আগের দিনে বিদূষক বা আজকের স্ট্যান্ডআপকমেডিয়ানরা হাসান ও হাসেন। কখনও নিছক অর্থহীন মজা করেন – কখনো সাম্প্রতিক বিষয় নিয়ে বা নেতামন্ত্রীদের নিয়ে মজা করেন। যেমন কার্টুনিস্টরা ছবির মাধ্যমে করেন, তেমনই স্ট্যাডআপকমেডিয়ানরা কথার মাধ্যমে মজা করেন। কার্টুনিস্ট বা স্ট্যান্ডআপকমেডিয়ান – এদের মনে হয় জানা নেই এদেশে এখন মজা করা মানা, হাসতে মানা। হাসির কথা বলতে গেলেই জেল। এখন হাসতে মানা, হাসাতে মানা। হাসলে বা হাসালেই জেল। সঞ্জয় কাক (কার্টুনিস্ট), কুনাল কামরা, কেনি সেবাস্টিয়ান, শ্রীধর ভেঙ্কটরামন ও সাম্প্রতিক কালে মুনোয়ার ফারুকি এসব স্ট্যান্ড কমেডিয়ানরা বারবার আক্রান্ত হয়েছেন বা হচ্ছেন। তাদের অনেকের বিরুদ্ধে FIR দায়েরও করছে উগ্র হিন্দুত্ববাদী দলের নেতা ও সমর্থকরা

এবার গ্রেপ্তার করা হল স্ট্যান্ডআপকমেডিয়ান মুনোয়ার ফারুকিকে। অভিযোগ – তিনি নাকি হিন্দু ধর্মের দেবদেবীকে ‘অপমান’ করেছেন। নতুন বছর পালন করতে ইন্দোরে একটি কফিশপে স্ট্যান্ডআপ কমেডি শোয়ের আয়োজন করা হয়। সেই অনুষ্ঠানে হিন্দু দেবদেবী ও কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করার অভিযোগ উঠেছে তাঁর বিরুদ্ধে। হিন্দ রক্ষক সংগঠনের প্রধা্ন, বিজেপি বিধায়ক মালিনী লক্ষ্মণ সিং গৌরের ছেলে একলব্য সিং গৌর ওই কমেডিয়ানের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন। মুনোয়ার ফারুকি গুজরাটের বাসিন্দা। ফারুকি ছাড়াও গ্রেপ্তার হয়েছেন ওই কফিশপের কর্মী প্রখর ব্যাস, প্রিয়ম ব্যাস, নলিন যাদব এবং অনুষ্ঠানের কোঅর্ডিনেটর এডুইন অ্যান্টনি। তাঁদের ১৩ জানুয়ারি পর্যন্ত জেল হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছে জেলা আদালত।

জানা গিয়েছে, ইন্দোরের ছাপান্ন দুকান এলাকার এক জনপ্রিয় কফিশপে ইংরাজি নতুন বছর উপলক্ষে স্ট্যান্ড আপ কমেডি শোয়ের আয়োজন করা হয়েছিল। মুনোয়ারের শো হবে শুনে সেখানে দলবল নিয়ে হাজির হয়েছিলেন একলব্য সিং গৌরসহ হিন্দ রক্ষক সংগঠনের সদস্যরা। প্রত্যক্ষদর্শীদের মতে শুরু থেকেই একলব্য সিং গৌরের দল হৈচৈ পাকাতে থাকে। কারণ তারা জানতেন যে মুনোয়ার বিভিন্ন সময় কেন্দ্রের নানা নীতির বিরোধীতা করেছেন কৌতুকের ছলে। এদিন অন্যান্য কৌতুকের পাশাপাশি উগ্র হিন্দুত্ববাদ, মুসলিম মৌলবাদ, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ ও গোধরা কাণ্ড নিয়ে একের পর এক কৌতুক উপস্থাপনা করছিলেন মুনোয়ার ফারুকি। তখন অনুষ্ঠান বন্ধের আরজি জানান হিন্দ রক্ষক সংগঠনের সদস্যরা। কিন্তু তাতে কর্ণপাত করেননি কফিশপ কর্তৃপক্ষ। তখনই গৌর ও তাঁর সাঙ্গপাঙ্গরা সমস্ত দর্শককে হলের বাইরে বের করে দেন এবং কমেডিয়ানসহ আয়জকদের উপর চড়াও হন। পরে তাঁরা পুলিশ ডাকেন। পুরো অনুষ্ঠানের রেকর্ডিং নিয়ে পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের করেন।

তুকোগঞ্জ থানার পুলিশ ঘটনার তদন্ত না করে, সম্পূর্ণ রেকডিং না দেখেই একলব্য সিং গৌরদের অভিযোগের ভিত্তিতে মুনোয়ার সহ পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করেন। ধৃতদের তরফে অভিযোগ, আদালতে নিয়ে যাওয়ার সময়ও তাঁদের হেনস্তা করেন একলব্য সিং গৌর ও তাঁর সাঙ্গপাঙ্গরা।

পুলিশ অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ২৯৫(), ২৬৯ ধারাসহ অন্যান্য নানা ধারায় মামলা করেছে। এই ঘটনায় আবারও একবার বিজেপি সরকারের বিরুদ্ধে অসহিষ্ণুতার অভিযোগ তুলেছেন স্থানীয় শিল্পীরা। অনেকের মতে, “এই ঘটনা প্রমাণ করে বিজেপি ধীরে ধীরে তার ফ্যাসিস্ট পদক্ষেপ জারি করছে। ধর্মের নামে শিল্পীদের স্বাধীনতাহরণের চেষ্টা চালাচ্ছে গেরুয়া শিবির”।

Please follow and like us:
error16
fb-share-icon0
Tweet 20
fb-share-icon20
No Thoughts on কৌতুক শিল্পীকে গ্রেপ্তার করল মধ্যপ্রদেশের পুলিশ : অভিযোগ – শিল্পীর উপর হামলা চালিয়েছে উগ্র হিন্দুত্ববাদীরা

Leave A Comment