কৃষকদের ডাকে ২৭শে সেপ্টেম্বর ভারত বন্ধের সক্রিয় সমর্থনে দেশজুড়ে পথে নেমেছে বিভিন্ন সংগঠন

আজকের খবর কৃষক আন্দোলন গণ-আন্দোলন বিশেষ খবর

Last Updated on 4 weeks by admin

ইন্দ্রানী পাল, ২৫ সেপ্টেম্বর,২০২১ :

কৃষক স্বার্থবিরোধী তিনটি কৃষি আইনের বিরুদ্ধে এবং ফসলের ন্যায্য দামের দাবিতে – ন্যুনতম সহায়ক মূল্য আইনের দাবিতে কৃষকদের আন্দোলন প্রায় এক বছর অতিক্রান্ত হওয়ার মুখে, সংযুক্ত কিষান মোর্চা আন্দোলনকে আরও জোরদার করতে এবং দেশব্যাপী ছড়িয়ে দিতে আগামী ২৭ সেপ্টেম্বর, সোমবার সারা ভারত ব্যাপী ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে। ৫ সেপ্টেম্বর উত্তর প্রদেশের মুজাফফরনগরে পঞ্চায়েতের বিশাল জমায়েত থেকেই এই ধর্মঘটের ঘোষণা করা হয়।

দেশের আপামর সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে, শ্রমিক সংগঠন, ট্রেড ইউনিয়ন এবং বিজেপি বিরোধী সব শক্তি ও সংগঠনগুলিকেই আহ্বান জানানো হয়েছে এই বন্‌ধে সামিল হওয়ার জন্য ।

সংযুক্ত কিষান মোর্চার ডাকে সাড়া দিয়ে পশ্চিমবঙ্গ থেকে শুরু করে কেরালা, তামিলনাড়ু, অন্ধপ্রদেশ, মহারাষ্ট্র এবং কর্ণাটকে সহ প্রায় সব রাজ্যের কৃষকদের বিভিন্ন সংগঠন, শ্রমিক সংগঠন, ব্যাঙ্ক ইউনিয়ন ও বামপন্থী রাজনৈতিক দলগুলি এই বন্‌ধকে সর্বোচ্চভাবে সফল করার জন্য, নিজের রাজ্যে তাদের মত প্রচার চালাচ্ছে ।

মহারাষ্ট্রে এই ভারত বন্‌ধকে সফল করার প্রয়োজনীয় কর্মসূচি নেওয়ার জন্য এই সপ্তাহের শুরুতেই  শতাধিক সংগঠনের প্রতিনিধিরা সম্মিলিত  হয়েছিলেন। সংযুক্ত কিষান মোর্চা ও এই ধর্মঘটকে সমর্থন জানানো অন্যান্য সংগঠনগুলিও তাদের বিবৃতিতে জানিয়েছে, এই বন্‌ধ শুধুমাত্র কৃষিবিলের বিরুদ্ধেই নয় বরং শ্রমিক স্বার্থবিরোধী নতুন শ্রমকোড, বিদ্যুৎ বিলের বিরুদ্ধেও। তার সাথে যোগ হয়েছে দেশে ক্রমবর্ধমান পেট্রোপণ্যের মূল্য বৃদ্ধি ও ”ন্যাশনাল মনিটাইজেশন পাইপলাইন”-র মতো প্রকল্পের মাধ্যমে দেশের জাতীয় সম্পত্তিকে  পুঁজিপতিদের স্বার্থে বাজারিকরণের সিদ্ধান্তের প্রতি বিরুদ্ধতাও।

২৭ তারিখের ভারত বন্‌ধে তেলেঙ্গানার বিভিন্ন শ্রমিক ও কৃষক সংগঠন মিলিয়ে প্রায় ৭০টি সংগঠন এই বন্‌ধকে সমর্থন জানিয়েছে । অসংগঠিত ক্ষেত্রের ”তেলেঙ্গানা ডোমেস্টিক ওয়ার্কারস ইউনিয়ন” ও ”হায়দ্রাবাদ ক্যাব ড্রাইভারস  অ্যাসোসিয়েশন”ও এই ভারত বন্‌ধে  সামিল হচ্ছে। কর্নাটকের একটি কৃষক সংগঠন ও  ”স্টেট সুগারকেন গ্রোয়ার্স অ্যাসোসিয়েশন” এই বন্‌ধের দাবিগুলিকে পূর্ণ সমর্থন জানিয়েছে। জানানো হয়েছে বন্‌ধের দিন কর্নাটকের  রাস্তায় দেশের বিজেপি সরকারের বিভিন্ন অগণতান্ত্রিক পদক্ষেপ ও কর্পোরেট পুঁজির শাসনের বিরুদ্ধে সর্বোচ্চ সংখ্যায় কৃষক-শ্রমিক, ছাত্র-ছাত্রী উপস্থিত থাকবেন ।

এছাড়াও গতকাল সারা ভারত জুড়ে  “স্কিম ওয়ার্কার”দের ধর্মঘটে সামিল হয়েছিলেন অঙ্গনওয়াড়ি, আশা কর্মী ও ন্যাশনাল হেলথ মিশন এর সঙ্গে যুক্ত মহিলা কর্মীরা । শ্রমিকের মর্যাদা ও অধিকারের দাবিসহ স্থায়ীকরণ, বেতন বৃদ্ধি, ESI  ও PF র সুবিধা এবং সামগ্রিকভাবে বেসরকারিকরণ কৃষি বিল ও শ্রমকোড  বাতিলের দাবিতে তারা সোচ্চার হোন। উল্লেখ্য সংযুক্ত কিষান মোর্চাও অঙ্গনওয়াড়ি কর্মীদের এই ধর্মঘটে সমর্থন জানিয়েছিল।

গতবছর থেকে চলে আসা এই কৃষক আন্দোলনের সঙ্গে যুক্ত  পাঞ্জাব, হরিয়ানা ও পশ্চিম উত্তরপ্রদেশের বিভিন্ন কৃষক সংগঠনের নেতারা এই এক বছরে সারাদেশের বিভিন্ন রাজ্যের কৃষক সংগঠনগুলির সঙ্গে বৈঠকে বসেছেন এবং তাদের সঙ্গে সংযোগ স্থাপনের চেষ্টা করেছেন। কৃষকদের সমস্যার বাইরে বেরিয়ে গিয়েও ব্যাপক অর্থে পরিযায়ী শ্রমিক, মানুষের রুটি-রুজির ও বেকারত্বের প্রশ্নকে সমান গুরুত্ব দিয়ে সার্বিকভাবে পুঁজি ও দেশের ফ্যাসিস্ট শোষণের বিরুদ্ধে মানুষকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার ডাক দিয়েছেন। তাই সংযুক্ত কিষান মোর্চার সঙ্গে যুক্ত কৃষক নেতারা মনে করেন এই  ধর্মঘট সাধারণ মানুষের সহযোগিতাতেই সফল হবে।

Please follow and like us:
error16
fb-share-icon0
Tweet 20
fb-share-icon20
Tagged
No Thoughts on কৃষকদের ডাকে ২৭শে সেপ্টেম্বর ভারত বন্ধের সক্রিয় সমর্থনে দেশজুড়ে পথে নেমেছে বিভিন্ন সংগঠন

Leave A Comment